প্রচ্ছদ / সারাদেশ / বিস্তারিত

For Advertisement

পীরগঞ্জে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে স্কুলের নামে প্রকল্প দেখিয়ে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ

১৯ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১:১৭:৩০

পীরগঞ্জে(ঠাকুরগাঁও)প্রতিনিধিঃ
ঠাকুরগাঁওয়ের পীরগঞ্জে একটি কেজি স্কুলের নামে টিআর প্রকল্পের বরাদ্দ দেখিয়ে অর্থ আতœসাত করার অভিযোগ উঠেছে এক ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে। এ বিষয়ে সাংবাদিকদের কোন তথ্য দিতে অস্বীকার করে ঐ চেয়ারম্যান বলেন, “সাংবাদিকদের কি কোন কাজ নাই, কে কি করে, আপনারা কি শুধু এসব দেখে বেড়ান ?

জানা যায়, গ্রামীন অবকাঠামো রক্ষনা-বেক্ষন কর্মসূচী টিআর প্রকল্পের আওতায় ২০২১-২২ অর্থ বছরে ঠাকুরগাও জেলার পীরগঞ্জ উপজেলার বৈরচুনা মডেল কিন্ডার গার্টেন স্কুলের দরজা-জানালা সংস্কার প্রকল্পের নামে ১ লাখ টাকা বরাদ্দ দেন বৈরচুনা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান টেলিনা সরকার হিমু। এরপর ভুয়া প্রকল্প কমিটি দেখিয়ে বরাদ্দের অর্থ উত্তোলন করেন ওই ইউপি চেয়ারম্যান। এ বিষয়ে স্কুলের প্রধান শিক্ষক দীলিপ রাজ বংশী জানান, ইউপি চেয়ারম্যান টেলিনা সরকার হিমু তার স্কুলের সভাপতি। তিনি স্কুলের নামে ১ লাখ টাকা বরাদ্দ দেন। কয়েক মাস আগে কিছু কাগজ পত্রে এবং একটি ব্যাংকের চেকে সই নেন চেয়ারম্যান। এরপর আর কিছু জানেন না তিনি। প্রধান শিক্ষক আরো জানান, এথন পর্যন্ত তিনি কোন টাকা পাননি বা তার স্কুলে কোন সংস্কার কাজ হয়নি। একটি নির্ভর যোগ্য সুত্র জানায়, ইউপি চেয়ারম্যান টেলিনা সরকার হিমু ঐ স্কুলের নামে বরাদ্দ দিয়ে ভুয়া প্রকল্প কমিটি দাখিল করে প্রকল্পের টাকা উত্তোলন করে আতœসাত করেছেন।

বে-সরকারি কেজি স্কুলে সরকারি বরাদ্দ দেওয়া প্রসঙ্গে উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আক্তারুজ্জামান বলেন, কেজি স্কুলে সরকারি বরাদ্দ দেওয়া সম্পুন্ন বে আইনী। তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া প্রয়োজন বলে মনে করেন তিনি।
এ বিষয়ে রবিবার বিকালে মোবাইল ফোনে ইউপি চেয়ারম্যান টেলিনা সরকার হিমুর কাছে জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেন, “সাংবাদিকদের কি কোন কাজ নাই, কে কি করে, আপনারা কি শুধু এসব দেখে বেড়ান। ্এ বিষয়ে আপনাকে কোন তথ্য দিবো না আমি”।

উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর আলম বলেন, প্রকল্প বাস্তবায়নের মেয়াদ শেষ হলেও বরাদ্দের সব অর্থ এখনো ছাড় করা হয়নি। ৫০ হাজার টাকা দেওয়া হয়েছে। কাজের অগ্রগতি দেখে বাকি টাকা ছাড় করা হবে। কাজ না হওয়া প্রসঙ্গে প্রকল্প বান্তবায়ন কর্মকর্তা বলেন, এ বিষয়ে প্রকল্প সভাপতিকে চিঠি দেওয়া হয়েছে। কোন উত্তর পাওয়া যায়নি। তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

For Advertisement

দৈনিক আলোর প্রতিদিন’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: